বৃটিশ সাংবাদিকের সঙ্গে টিউলিপের তর্ক, পাল্টাপাল্টি অভিযোগ!

নিউজ ডেস্ক
ঢাকা: বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন করায় এক বৃটিশ সাংবাদিককে হুমকি এবং অশ্রাব্য ভাষায় কথা বলে সমালোচনার ঝড় তোলেছেন যুক্তরাজ‌্যের লেবার দলীয় এমপি এবং বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভাগ্নি টিউলিপ সিদ্দিক। বুধবার দ্য টেলিগ্রাফে প্রকাশিত খবরে এ কথা বলা হয়।

লন্ডনের হ্যাম্পস্টেড এলাকায় ইরানে আটক এক বৃটিশ মহিলার পক্ষে প্রচারণা চালানোর সময় টিউলিপের সাক্ষাৎকার নিতে যান যুক্তরাজ্যের জনপ্রিয় গণমাধ্যম চ্যানেল ফোর এর সাংবাদিক ডেইজি। ২০১৬ সালে বাংলাদেশে গুম হওয়া বৃটেন থেকে ব্যারিস্টার ডিগ্রি সম্পন্ন করা এক নাগরিকের মুক্তির ব্যাপারে টিউলিপ কোনো ভূমিকা রাখতে পারবেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে সাংবাদিকের ওপর ক্ষেপে উঠেন তিনি।

ডেইজিকে সতর্ক করে দিয়ে টিউলিপ বলেন, আমি হ্যাম্পস্টেড এবং কিলবার্ন এর এমপি, ব্রিটিশ পার্লামেন্টের একজন সদস্য। খুবি সতর্ক থাকবেন।

তিনি বাংলাদেশি নাগরিক নন উল্লেখ করে টিউলিপ আরো বলেন, আমি বাংলাদেশের নাগরিক না। আর আপনি যে ব্যক্তির কথা বলছেন তার মামলা সম্পর্কে আমি জানি না। এখানেই আমার কথা শেষ।

উল্লেখ্য ২০১৬ সালে জামায়াতে ইসলামী নেতা মীর কাসেম আলীর ছেলে আহমেদ বিন কাসেমকে গুম করা হয় তার বাসা থেকে। তিনি সরকারের আইনশৃঙ্খলাবাহিনী কর্তৃক গুম হয়েছেন বলে দাবি করে আসছে মানবাধিকার সংস্থাগুলো।

শুধু তাই নয়, এর কিছুক্ষণ পরই বৃিটিশ সাংবাদিকের মাতৃত্ব নিয়েও কটাক্ষ করেন টিউলিপ। সাংবাদিক অ্যালেক্স থমসন ঘটনাটি প্রসঙ্গে বলেন, ক্যামেরা থেকে একটু দূর হেঁটেই টিউলিপকে বলতে শোনা যায়, এখানে আসার জন্য ডেইজিকে ধন্যবাদ। আশা করি তোমার ভালো একটা বাচ্চা হবে, কারণ সন্তানের মাতৃত্বের বিষয়টা খুবি কঠিন কাজ।

বিষয়টি নিয়ে নিন্দার ঝড় উঠেছে সংবাদ মাধ্যমসহ সামাজিক যোগােযাগ সাইটগুলোতেও। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যারা এটা দেখেছেন তারা বিষয়টিকে উদ্ভট এবং অশোভন আচরণ বলে মন্তব্য করেছেন।

সাংবাদিক থমসন এ ব্যাপারে বলেছেন, প্রশ্নের উত্তরে কোনো এমপিকে খুব সতর্ক থাকবেন এমন কথা বলা আমার সাংবাদিকতার ৩০ বছরেও দেখিনি।

নিজের মনের খেদ প্রকাশ করে হুমকির শিকার সাংবাদিক ডেইজি এইলিফ টুইট করেছেন, সন্তান সম্ভবাদের সাংবাদিক হওয়াটা ভয়াবহ। যে কোনো এমপি এটাকে আপনার বিরুদ্ধে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করতে পারে।

নিজের সাংবাদিককে হুমকি দেবার ঘটনায় টিউলিপ এবং লেবার পার্টির কাছে প্রতিবাদ জানিয়েছেন চ্যানেল ফোরের নিউজের সম্পাদক। আর তাতে একটু না দমে টিউলিপ জানিয়েছেন তিনিও পুলিশের কাছে চ্যানেলটি নিয়ে নালিশ করেছেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।