ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে বসতে চায় ইসলামী আন্দোলন

নিউজ ডেস্ক: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে পুনর্নির্বাচনের দাবিতে আন্দোলনের হুমকি দিয়েছে চরমোনাইয়ের পীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীমের নেতৃত্বাধীন ইসলামী আন্দোলন, বাংলাদেশ। দাবি আদায়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে আলোচনায় বসতে চায় দলটি।

মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে দলটির আমির রেজাউল করীম বলেন, ‘দেশের সচেতন জনগণ ও যারা দেশের পক্ষে, তাদের সঙ্গেই আমাদের ঐক্য হবে। দাবিগুলো এক হলে ঐক্যফ্রণ্টের সঙ্গে আলোচনায় বসতে পারি।’

৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনকে ‘প্রহসনের নির্বাচন’ আখ্যা দিয়ে তিনি বলেন, ‘নির্বাচনে জনগণের মতামতের কোনো প্রতিফলন ঘটেনি। তাই এই ফলাফল আমরা প্রত্যাখ্যান করছি। নির্দলীয় সরকারের অধীনে পুনরায় নির্বাচনের দাবি জানাচ্ছি। দাবি মানা না হলে তীব্র আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।’

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) ভূমিকা নিয়ে সমালোচনা করে রেজাউল করীম বলেন, ‘২৯৮ আসনে আমরা প্রার্থী দিয়েছিলাম। তাই নির্বাচনে অনিয়মের বিষয়ে আমরা বেশি অবগত। এ বিষয়ে বারবার আমরা ইসিতে লিখিত অভিযোগ দিয়েছি। দলের নেতারা প্রধান নির্বাচন কমিশনারের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেও অভিযোগ জানিয়েছেন। কিন্তু কার্যকর কোনো পদক্ষেপ নেয়নি ইসি।’

চরমোনাইয়ের পীর বলেন, ‘আওয়ামী লীগ ও মহাজোটের প্রার্থীরা আচরণবিধি লঙ্ঘন করার পরেও প্রশাসন ছিল নীরব। এবারের নির্বাচনে সব কেন্দ্রেই ‘ভোট ডাকাতি’ হয়েছে। নির্বাচন কমিশন ও দায়িত্ব পালনরত প্রশাসনিক লোকজন নৌকা ও মহাজোটের প্রার্থীদের জয়ী করতে একযোগে কাজ করেছেন।’

সংবাদ সম্মেলনে ইসলামী আন্দোলনের সভাপতিম-লীর সদস্য ঢাকা-৪ আসনের প্রার্থী সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল-মাদানী, যুগ্ম মহাসচিব এটিএম হেমায়েতউদ্দীন ও মাবুবুর রহমান, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি ইমতিয়াজ আলম, ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি ফজলে বারী মাসউদসহ উপস্থিত ছিলেন।