কাদিয়ানিদের বিরুদ্ধে শক্ত পদক্ষেপ চান ড. মাসিতাহ

Dr Mashitah Ibrahim sedia

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
কুয়ালালামপুর: আহমদিয়া (কাদিয়ানি) সম্প্রদায়ের বিপদগামী শিক্ষা প্রচারের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন মালয়েশিয়ার বিশিষ্ট নারী ইসলামিক পণ্ডিত ও মন্ত্রিপরিষদের সাবেক সদস্য ড. মাসিতাহ ইব্রাহিম।

মালয়েশিয়ার ইসলামিক স্কুলে আগুনে ২১ শিশু নিহতের ঘটনায় বৃহস্পতিবার একটি প্যানেল আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এই আহ্বান জানান।

‘পন্ডক মালয়েশিয়া ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশনের’ নির্বাহী চেয়ারম্যান ড. মাসিতাহ ইব্রাহিম বলেন, ‘আমরা চাই না মালয়েশিয়া তার প্রতিবেশি দেশের মতো হোক; যেখানে বিপথগামী শিক্ষাসহ ইসলামের স্বাধীনতা অনুমোদিত।’

ইসলাম রাষ্ট্রীয় আওতাধীনের বিষয় হওয়ায় তিনি আশা করেন যে, ইসলামি ধর্মীয় বিভাগ (জেএআইএস) অবিলম্বে আহমদিয়াদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিবে।

তিনি বলেন, ‘আহমদিয়ারা ৪০ বছরেরও বেশি সময় ধরে তাদের কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে। সুতরাং এমন নয় যে ধর্মীয় পরিষদ তাদের সম্পর্কে জানে না। প্রশ্ন হলো আহমদিয়ারা দীর্ঘদিন ধরে খোলাখুলিভাবে এবং সক্রিয়ভাবে তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করলেও কেন তাদের বিরুদ্ধে তারা (ধর্মীয় পরিষদ) কোন ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করেননি।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমরা অন্য নিরাপত্তার হুমকিগুলো গুরুত্ব সহকারে গ্রহণ করলেও আমাদের বিশ্বাস যখন হুমকির সম্মুখীন হয় তখন তা আমরা গুরুত্ব সহকারে গ্রহণ করি না। এটি অবশ্যই একটি গুরুতর হুমকি হিসাবে দেখা উচিত। কেননা এটি আমাদের সমাজ এবং আমাদের দেশের ইসলামি মূল্যবোধকে বিপন্ন করে তুলেছে।’

কাদিয়ানিদের বিপদগামী শিক্ষার বিরুদ্ধে দৃঢ় পদক্ষেপ গ্রহণ করতে ইব্রাহিম রাজ্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন কাদিয়ানিরা সক্রিয়ভাবে ‘নাকোদা’ ও ‘গোমব্যাক’ গ্রামের আশেপাশে সক্রিয়ভাবে প্রচার চালাচ্ছে এবং এর মাধ্যমে স্থানীয়দের মধ্যে উদ্বেগ সৃষ্টি করছে।

তিনি বলেন, ‘মালয়েশিয়ায় আমরা সুন্নাহ ওয়াল জামায়াতুল চিন্তাধারা অনুসরণ করি এবং কিভাবে এই বিপথগামী সম্প্রদায় তাদের নিজস্ব স্থাপনা প্রতিষ্ঠা করার সাহস পায়। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করা উচিত।’

তিনি মত দেন যে, চারপাশের মানুষদের বিশ্বাস রক্ষা করার জন্য কাদিয়ানী (আহমদীয়া) সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে জরুরি ব্যবস্থা নিতে হবে।

১৯৯৮ সালে মালয়েশিয়ার রাষ্ট্রীয় ফতোয়া কমিটি আহমদিয়া শিক্ষার অনুসরণকারীদের ‘কাফির’ বলে ঘোষণা দেন।

সূত্র: মালয়েশিয়া ভিত্তিক ‘রাবাহ টাইমস’

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।