সিলেটে সিটি নির্বাচনে জামায়াতের প্রার্থী ছাত্রশিবিরের সাবেক সভাতি জুবায়ের

নিজস্ব প্রতিনিধি
সিলেট: সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচন আগামী বছরের প্রথমার্ধে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। ইতিমধ্যে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের প্রার্থীরা তোড়জোড় শুরু করেছেন। প্রধান দুটি দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপির পক্ষ থেকে শক্তিশালী প্রার্থী দেওয়ার চিন্তাভাবনা শুরু হয়েছে। কিন্তু এখনো প্রার্থী চূড়ান্ত করা হয়নি।

তবে এবার আগেভাগেই সিলেট সিটি করপোরেশনে মেয়র প্রার্থী ঘোষণা করেছে জামায়াতে ইসলামী। বুধবার আনুষ্ঠানিকভাবে সভা করে এই প্রার্থিতা ঘোষণা করা হয়।

দলের কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও সিলেট মহানগর আমীর অ্যাডভোকেট এহসানুল মাহবুব জুবায়ের এ পদে দলের প্রার্থী হচ্ছেন। বুধবার সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির ২নং বার হলে অনুষ্ঠিত আইনজীবীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভার মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক প্রার্থিতা ঘোষণা করেন তিনি।

জেলা বারের সভাপতিসহ আইনজীবীরা তাকে সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ইসলামিক ল’ইয়ার্স কাউন্সিলের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আলিম উদ্দিন জানিয়েছেন। বুধবার আসন্ন সিলেট সিটি নির্বাচনকে সামনে রেখে কাউন্সিলের উদ্যোগে মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়।

জেলা বারের সিনিয়র আইনজীবী ও কাউন্সিলের সভাপতি অ্যাডভোকেট এ.এস.এম আব্দুল গফুরের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. আলিম উদ্দিনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ লালা।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ লালা বলেন- ‘অ্যাডভোকেট জুবায়েরের মতো জেলা বারে এমন সজ্জন, সৎ, যোগ্য ও মেধাবী আইনজীবী পেয়ে সত্যিই আমরা গর্বিত। এমন মিষ্টভাষী ও সাদামনের মানুষ মেয়র হবে শুনলে খুশিতে বুকটা ভরে যায়। আমি কোনো দলের রাজনীতি করি না।

রাজনৈতিক ব্যাপারে আমি কারো নিকট দায়বদ্ধ নই। অ্যাডভোকেট জুবায়ের মেয়র পদে প্রার্থী হলে দল-মতের ঊর্ধ্বে থেকে আমি সর্বাত্মকভাবে কাজ করতে প্রস্তুত রয়েছি। অ্যাডভোকেট জুবায়েরের দলকে ধন্যবাদ যে পুণ্যভূমি সিলেটের মেয়র পদে প্রার্থী হিসেবে তাকে মনোনীত করেছে।’ অ্যাডভোকেট হুসাইনুর রহমান লায়েছ-এর কোরআন তেলাওয়াতের মধ্য দিয়ে সূচিত অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সিলেট মহানগর জামায়াতের সেক্রেটারি মাওলানা সোহেল আহমদ। মতবিনিময় সভায় সিলেট জেলা বারের প্রায় দুই শতাধিক আইনজীবী উপস্থিত ছিলেন।

অ্যাডভোকেট এহসানুল মাহবুব জুবায়ের বলেন- ‘আমার দল আসন্ন সিসিক নির্বাচনে আমাকে মেয়র প্রার্থী হিসেবে মনোনীত করায় আইনজীবীদের সঙ্গে মতবিনিময়ে বসেছি। আমি বলেছি সিলেট জেলা বার একটি পরিবার। সুতরাং এই পরিবার থেকে সাড়া না পেলে আমি নির্বাচন করবো না। কিন্তু বারসভাপতি সহ আমার সহকর্মী আইনজীবী বৃন্দ আমাকে ভালোবেসে যে সাড়া দিয়েছেন আমি তা কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করছি।’

এ সময় বক্তব্য রাখেন সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট হোসেন আহমদ, সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট জামিলুল হক জামিল, সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ইলিয়াস, অ্যাডভোকেট আনোয়ার হোসেন, জেলা আইনজীবী সমিতির সিনিয়র সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট মো. শামসুল হক, যুগ্ম সম্পাদক অ্যাডভোকেট দিলোয়ার হোসেন দিলু ও অ্যাডভোকেট আকমল খান, সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট আব্দুল কুদ্দুস, অ্যাডভোকেট মিনহাজ উদ্দিন খান, অ্যাডভোকেট আব্দুল মতলিব চৌধুরী, অ্যাডভোকেট ওবায়দুর রহমান, অ্যাডভোকেট মো. আব্দুর রব প্রমুখ।

অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- অ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম, অ্যাডভোকেট মর্তুজা আহমদ, অ্যাডভোকেট অমরেন্দ্র নারায়ণ ভট্টাচার্য, অ্যাডভোকেট আব্দুল আহাদ, অ্যাডভোকেট আবুল কালাম, অ্যাডভোকেট ফজলুল হক, অ্যাডভোকেট আব্দুস সাত্তার, অ্যাডভোকেট এন আই মাসুম চৌধুরী, অ্যাডভোকেট মুমিনুর রহমান টিটু, অ্যাডভোকেট আব্দুল খালিক, অ্যাডভোকেট জামিল আহমদ রাজু, অ্যাডভোকেট মাসুদ আহমদ মহসিন, অ্যাডভোকেট কামরুজ্জামান, অ্যাডভোকেট রাশিদা সাঈদা খানম, অ্যাডভোকেট তৌহিদুল ইসলাম সোহাগ, অ্যাডভোকেট রাহিমা আক্তার মৌরী, অ্যাডভোকেট খানন আলম, অ্যাডভোকেট ইকবাল আহমদ, তানভীর আক্তার খান, অ্যাডভোকেট ইউসুফ খান, অ্যাডভোকেট আজিম উদ্দিন, অ্যাডভোকেট আব্দুল মুকিত প্রমুখ। মহানগর জামায়াত নেতৃবৃন্দের মধ্য থেকে উপস্থিত ছিলেন- মহানগর সহকারী সেক্রেটারি মো. শাহজাহান আলী ও ড. নুরুল ইসলাম বাবুল।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।