এটা প্রধানমন্ত্রীর মুখে মানায় না: বি চৌধুরী

নিউজ ডেস্ক
ঢাকা: নাকে খত দিয়ে বিএনপি নির্বাচনে আসবে- প্রধানমন্ত্রীর মুখে এমন ভাষা মানায় না বলে মন্তব্য করেছেন সাবেক রাষ্ট্রপতি ডা: এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী। তিনি বলেন, বিএনপি ও তাদের দলের চেয়ারপারসন কে নিয়ে প্রধানমন্ত্রী আরও ভদ্র ভাষায় কথাগুলো বলতে পারতেন। একজন প্রধানমন্ত্রী হিসাবে তার মুখে এমন ভাষার উচ্চারণ মানায় না।

শুক্রবার রাজধানীর শিশু কল্যাণ পরিষদে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। ৬ই ডিসেম্বর গণতন্ত্র দিবস উপলক্ষে এ আলোচনা সভার আয়োজন করে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফাউন্ডেশন নামের একটি সংগঠন। প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেন, ২০১৪ সালের ৫ই জানুয়ারি যে নির্বাচন করেছেন।

যার মধ্যে ১৫০ জন কারো ভোটে নির্বাচিত হয়নি, তারা আবার সংসদেরও সদস্য, তাদের সম্মতি নিয়ে আবার সংবিধানও পরিবর্তন করেছেন। তাদের নিয়ে আবার বড়াই করে কথা বলেন এর নাম কি গণতন্ত্র। এগুলো নিয়ে আবার গর্ভ করেন। এটা লজ্জা।

আগামী একাদশ জাতীয় নির্বাচনে সব রাজনৈতিক দলকে স্বাধীনভাবে জনগণের কাছে যেতে দিন মন্তব্য করে সাবেক এই রাষ্ট্রপতি বলেন, আমরা একটি স্বাধীন জাতি। আপনাদের সভা সমাবেশ করতে কোনো অনুমতির প্রয়োজন হয়না। আর বিরোধী দলগুলোর সভা সমাবেশ করতে অনুমতির লাগে। এর নাম কি গণতন্ত্র। অবিলম্বে সব রাজনৈতিক দল গুলোকে স্বাধীনভাবে জনগণের কাছে যেতে দিন।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেশে সফররত রোবট সফিয়ার কথাপোকথনের সমালোচনা করে নাগরিক ঐক্যের আবহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ১২ কোটি টাকা খরচ করে একটা মূর্তি দিয়ে নিজের নামে প্রশংসা শুনার মত এতবর ভাওতাবাজী পৃথিবীর ইতিহাসে আর কোথাও হয়নি।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি কামাল উদ্দিন আহম্মেদের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেনের সঞ্চালনায় সভায় আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য ইসমাইল হোসেন বেঙ্গল, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আমল প্রধান, দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলনের সভাপতি কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন, গণসংস্কৃতিক দলের সভাপতি এস আল মামুন প্রমুখ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।