‘আমার হাতে রক্তের দাগ নেই, গুম-খুন দেখে মনে হয় দেশে সরকার নেই’

হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ

নিউজ ডেস্ক
ঢাকা: জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, গুম খুন ধর্ষণ ও দুর্নীতির চিত্র দেখলে মনে হয় দেশে সরকার নেই। এ থেকে রক্ষা পেতে মানুষ রংপুর সিটি নির্বাচনের মতোই ভবিষ্যতের সব নির্বাচনেই দেশবাসী লাঙ্গলের ওপর আস্থা রাখবে বলে আমার বিশ্বাস।

তিনি বলেন, জনগণের জানমালের নিরাপত্তার দায়িত্ব সরকারের। কিন্তু ক্ষমতায় টিকে থাকার চিন্তায় সরকার দায়িত্ব পালনে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে। জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় এলে জনগণের জানমালের দায়িত্ব নেবে।

শনিবার জাতীয় পার্টির বনানী কার্যালয়ে পিরোজপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য রুস্তম আলী ফরাজীর জাতীয় পার্টিতে যোগদান উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে একথা বলেন তিনি।

অন্য রাজনৈতিক দলের সমালোচনা করে সাবেক রাষ্ট্রপতি বলেন, বিএনপি ও আওয়ামী লীগ দুই সরকারই আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়েছে। তাই তারা কেউই চায় না আমার নামে করা মামলার নিষ্পত্তি হোক।

এরশাদ বলেন, রংপুর সিটি করপোরেশনের প্রভাব আগামী জাতীয় নির্বাচনেও পড়বে। কারণ সরকারের পরিবর্তন চায়। রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে তা প্রমাণিত হয়েছে।

তিনি বলেন, জাতীয় পার্টি নিন্দিত নয় নন্দিত দল। ১৯৯০ সালে ক্ষমতা ছাড়লাম, কথা ছিল আমাকে নির্বাচন করতে দেয়া হবে। জানতাম নির্বাচন করলে জয়ী হবো। কিন্তু নির্বাচন করতে দেয়া হয়নি। আমাকে জেলে পাঠানো হলো। ছয় বছর জেলে কাটিয়েছি। পৃথিবীর কোনো নেতা একটানা জেলে ছিল না। আওয়ামী লীগকে বারবার সমর্থন দিলাম। বিনিময়ে কী পেলাম? আনোয়ার হোসেন মঞ্জুকে দিয়ে দল ভাঙ্গার চেষ্টা করা হয়েছে। অঙ্গীকার ভঙ্গ করল।

তিনি বলেন, কেউ আমাদের বন্ধু নয়, আমাদের বন্ধু আমরাই। আর জনগণ। ডা. মিলন হত্যার বিচার দাবি করে সাবেক এ রাষ্ট্রপতি বলেন, মিলন চত্বর আমি করলাম। আমার হাতে রক্তের দাগ নেই। জাতীয় পার্টি দেশের অবস্থার পরিবর্তন করেছে। যমুনা সেতুর ভিত্তি প্রস্তর করলাম। অথচ উদ্বোধনের সময় আমাকে মঞ্চে রাখা হলো না। আগামীতে আমার ক্ষমতায় এসে মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করবো।

অনুষ্ঠানে পার্টির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার যোগদানকারী সংসদ সদস্য রুস্তম আলী ফরাজিসহ সবাইকে অভিভাদন জানিয়ে বলেন, এরশাদের প্রতি আস্থা রাখতে হবে। এরশাদ জমানার উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে বলেন নতুন প্রজন্মকে তা জানাতে হবে। সারাদেশে দলকে আরো শক্তিশালী করতে হবে। আগামী জাতীয় নির্বাচনের মধ্যদিয়ে দেশে ক্ষমতার পরিবর্তন ঘটবে। এর পূর্বাভাস রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন।

এ সময় আরো বক্তব্য দেন, জাপা ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি ও পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, মেজর অব. খালেদ আখতার, উপদেস্টা শামীম হায়দার পাটোয়ারি, নুরুল ইসলাম নুরু, ইয়াহিয়া চৌধুরী এমপি, আমির হোসেন এমপি, ইসহাক ভূইয়া, ফখরুল আহসান শাহাজাদা, গোলাম মোস্তফা, আসমা আশরাফ প্রমুখ।