এমন ন্যাক্কারজনক নির্বাচন আর কখনো হয়নি: জাপা প্রেসিডিয়াম সদস্য সুনীল

নিজস্ব প্রতিনিধি
খুলনা: খুলনা-১ আসনের জাতীয় পার্টির প্রার্থী, দলটির প্রেসিডিয়াম সদস্য নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগ তুলে ভোট বর্জন করেছিলেন। এবার এই নির্বাচনকে ‘কলঙ্কিত’ বললেন তিনি। তিনি তার ব্যক্তিগত ফেসবুক ওয়ালে একটি স্ট্যাটাস দেন যার শিরোনাম ‘কলঙ্কিত নির্বাচন বর্জন করলাম-সুনীল শুভ রায়’। সুনীল শুভ রায়ের স্ট্যাটাসটি আরটিএনএনের পাঠকদের জন্য তুলে দেয়া হল-

‘কলঙ্কিত নির্বাচন বর্জন করলাম-সুনীল শুভ রায়

ঢাকা-৩০ ডিসেম্বর রবিবার ২০১৮: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আমি সুনীল শুভ রায় খুলনা-১ আসনের জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছিলাম। কিন্তু বাংলাদেশের ইতিহাসে যে কলঙ্কিত নির্বাচন এখন চলছে- এই নির্বাচন আমি আজ সকাল সাড়ে ১০ ঘটিকায় ঘৃণাভরে বর্জন করেছি।

ইতিপূর্বে খুলনা -১ আসনে এই ধরণের ন্যাক্কারজনক নির্বাচন আর কখনো অনুষ্ঠিত হয়নি। সকাল ৮টায় ভোট গ্রহণ শুরু হতে না হতেই আওয়ামী লীগ দলীয় নেতাকর্মীরা প্রশাসনের সহায়তায় অধিকাংশ ভোটকেন্দ্র দখল করে নেয়। তারা আমার দলীয় এজেন্টদের ভোট কেন্দ্রে ঢুকতে বাঁধা দেয়, আবার যারা ঢুকতে পেরেছিল তাদের কাছ থেকে জোর করে স্বাক্ষর রেখে মেরে-ধরে বের করে দেয়া হয়েছে। কয়েকজন এজেন্টকে বেঁধেও রাখা হয়েছে। আমার বটিয়াঘাটা উপজেলা সভাপতি মতুয়ালী শেখকে গাওঘরা কেন্দ্রের বাইরে নির্দয়ভাবে প্রহার করা হয়েছে। তাকে হাসপাতালে নেবার জন্য এম্বুলেন্স পর্যন্তও যেতে দেওয়া হয়নি। ভোট দিতে যারা ভোট কেন্দ্রে ঢুকেছে তাদের প্রকাশ্যে নৌকার প্রতীকে সিল দিতে বাধ্য করা হয়েছে।

এই নির্বাচন সুষ্ঠু হলে আমি কমপক্ষে ৭০ ভাগ ভোট পেয়ে বিজয়ী হতে পারতাম। কিন্তু গণতন্ত্রের গায়ে যেভাবে কালিমালিপ্ত করে নির্বাচনী ব্যবস্থাকে কলুষিত করা হয়েছে- তাতে আগামীদিনে কোনো দলীয় সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার পথ চিরতরে বন্ধ করে দেওয়া হলো। আমি এই ভূয়া নির্বাচন বাতিল করে গণতন্ত্রের স্বার্থে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানের তারিখ ঘোষণার দাবী জানাচ্ছি।

সুনীল শুভরায়

খুলনা-১ আসনের, জাতীয় পার্টির প্রার্থী’