ইংরেজি ভাষায় কুরআন অনুবাদ করে গর্বিত অধ্যাপক ইয়াসিন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
ঢাকা: ভারতীয় অধ্যাপক মুহাম্মাদ ইয়াসিন বলেছেন, পবিত্র কুরআনকে ইংরেজি ভাষায় অনুবাদ করে আমি গর্বিত। ১৯৩২ সালে ভারতের জালালাবাদে জন্মগ্রহণ করেন অধ্যাপক মুহাম্মাদ ইয়াসিন। তিনি ইংরেজি ভাষায় পবিত্র কুরআনের অনুবাদ করেন।

অধ্যাপক ইয়াসিনের ‘পায়গাম্বারে অখার’ নামে অনুদিত কুরআন শরিফটি সর্বপ্রথম ২০০১ সালে প্রকাশিত হয়।

৮৬ বছরের অধ্যাপক ইয়াসিন বিশ্বের সর্বপ্রথম আরবি ভাষা থেকে ইংরেজি ভাষায় কুরআন অভিধানের লেখক। এই অভিধানের নাম The first comprehensive dictionary of Holy Quran। এই অভিধানটি এপর্যন্ত বেশ কয়েকবার প্রিন্ট ও প্রকাশিত হয়েছে।

অধ্যাপক মোহাম্মদ ইয়াসিনের ১৯৩২ সালে ভারতের জালালাবাদে জন্মগ্রহণ করেন। চার বছর বয়সে তার পিতা ইন্তেকাল করেন এবং ৭ বছর বয়সে তার মাতা ইন্তেকাল করেন। তিনি চাচার কাছে বড় হন।

তার ১৭ বছর বয়সে চাচার মৃত্যুর কারণে তাকে অনেক বড় আঘাত সইতে হয়। এত দুঃখ, বাধা ও দরিদ্রতা থাকা সত্ত্বেও তিনি তার লক্ষ্যে পৌঁছেন। তিনি ভারতের আল্লাহবাদের ইভিং কলেজে অধ্যয়নরত অবস্থায় মানসিক এবং আধ্যাত্মিকতার ক্ষেত্রে অনেক শক্তিশালী হন। একনিষ্ঠভাবে পড়াশোনা করে অধিক জ্ঞান অর্জন করেন এবং একই সাথে উর্দু, ইংরেজি এবং হিন্দি ভাষার ওপর বিশেষ পারদর্শী হয়ে উঠেন।

এছাড়াও তিনি আরবি ভাষা শেখেন। ১৯৬০ সালে কুরআন অনুবাদ শুরু করেন। তবে ১৯৯০ সালের দিকে এসে অনেক সমস্যার কারণে সেটি সম্পন্ন করতে পারেন নি।

অধ্যাপক ইয়াসিন দীর্ঘদিন যাবত চোখে কালো পানির অসুস্থতা ভুগছেন। তবে এর কারণে তিনি কুরআন অনুবাদের কাজ বন্ধ করেন নি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।