‘দ্য ওয়ার্ল্ড ইজ বিগার দ্যান ফাইভ’ এরদোগানের গানে বিশ্বে তোলপাড়

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আঙ্কারা: তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগানের সংস্কারবাদী আদর্শ ‘দ্য ওয়ার্ল্ড ইজ বিগার দ্যান ফাইভ’ অর্থাৎ ‘পাঁচ দেশের শক্তি থেকে বিশ্ব অনেক বড়’ শিরোনামে একটি নতুন সঙ্গীত প্রকাশ করা হয়েছে। গানটি ইতোমধ্যে বিশ্বের নিপীড়িতদের থিম সঙ্গীত হয়ে ওঠেছে।

সুইস-ভিত্তিক গায়ক ইকরেম কর্তৃক পরিচালিত ‘দ্য ওয়ার্ল্ড ইজ বিগার দ্যান ফাইভ’ গানটি বৃহস্পতিবার ইউটিউবে শেয়ার করা হয়েছে।

তুর্কি ক্ষমতাসীন দল ‘জাস্টিজ এন্ড ডেভেলপমেন্ট পার্টির (একে পার্টি) ইস্তাম্বুল শাখার উপ-প্রধান আজিজ বাবুসুর উদ্যোগে গানটির কথা লিখেছেন তুরস্কের খ্যাতিমান লেখক তুর্গে ইভেন।

গানের ভিডিওতে মায়ানমার, সিরিয়া, প্যালেস্টাইন এবং আফ্রিকার বিভিন্ন দেশসহ সারা বিশ্বের নিপীড়িত ও সংগ্রামরত মানুষের চিত্র তুলে ধরা হয়েছে।

বাবুসু জানান, ‘দ্য ওয়ার্ল্ড ইজ বিগার দ্যান ফাইভ’ গানটির মাধ্যমে বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলে নিপীড়িত মানুষের অনুভূতি তুলে ধরা হয়েছে এবং তা প্রতিরোধের জন্য আহ্বান জানানো হয়েছে।

নিপীড়িতদের জন্য ইকরেমের এটাই প্রথম গান নয়। গত জুলাই মাসে ২০১৬ সালের ১৫ জুলাইয়ের রক্তাক্ত অভ্যুত্থানের প্রথম বার্ষিকীতেও ‘মায় বিলাভড তার্কি’ শিরোনামে একটি গান মুক্তি দেন।

এরদোগানের উদ্ভাবিত ‘দ্য ওয়ার্ল্ড ইজ বিগার দ্যান ফাইভ’ মন্ত্রে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের পাঁচ স্থায়ী সদস্য যথা চীন, ফ্রান্স, রাশিয়া, যুক্তরাজ্য এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে চিহ্নিত করা হয়েছে। এসব দেশের ভেটো ক্ষমতার কারণে জাতিসংঘ আজ খেলার পুতুলে পরিণত হয়েছে। সারা বিশ্বে সাধারণ মানুষ বিশেষকরে মুসলিমরা নিপীড়নের শিকার হচ্ছে কিন্তু এই পাঁচ দেশের কারণে কিছুই করতে পারছেন না জাতিসংঘ।

সূত্র: ডেইলি সাবাহ

বিক্ষোভের প্রতীক ফিলিস্তিনি কিশোরের ছবিতে এরদোগানের ভোট
তুরস্কের রাষ্ট্র পরিচালিত সংবাদমাধ্যম অ্যানদোলু এজেন্সির ‘ফটোস অব দ্য ইয়ার’ প্রতিযোগিতায় শুক্রবার ভোট দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান।

বছরের সেরা ছবি হিসেবে জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ঘোষণার বিরুদ্ধে বিক্ষোভের প্রতীক হয়ে ওঠা ফিলিস্তিনি কিশোরের ছবিতে ভোট দেন এরদোগান।

‘নিউজ ক্যাটেগরি’ শ্রেণিতে অন্তর্ভুক্ত আনাদোলু এজেন্সির ফটোসাংবাদিক উইসাম হাসলামানের তোলা ছবিটির জন্য এরদোগান ভোট দেন।

ছবিতে দেখা যায়, ১৬ বছর বয়সী ফিলিস্তিনি কিশোর ফেজবি আল-জুনাইদিকে চোখ বেঁধে টেনে হিঁচড়ে নিয়ে যাচ্ছে ইসরাইলি বাহিনীর সদস্যরা।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে গত ৭ ডিসেম্বর পশ্চিম তীরের হেব্রোনে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ থেকে তাকে আটক করা হয়।

এছাড়াও, এরদোগান জীবন এবং ক্রীড়া বিভাগেও ভোট দেন। তিনি ‘কোস্টাক’ নামে এ একটি কুকুরে ছবিটি বেছে নেন। একটি গাড়ির আঘাতে কুকুরটির পিছনের পা প্যারালাইজ হয়ে গেছে। কুকুরটিকে এখন একটি শপিং কার্টের সঙ্গে সেট করা একটি যন্ত্রের সাহায্যে হাঁটতে হয়। ছবিটি ফটো জার্নালিস্ট জাকারিয়া কারাদাভুত কর্তৃক গৃহীত হয়েছিল।

স্পোর্টস বিভাগে, গত ৯ অক্টোবর ইস্তানবুলে তুরস্ক ও ইংল্যান্ডের মধ্যে ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশিপ জয়ের পর উদযাপনরত তুর্কি ফুটবল খেলোয়াড় আব্দুল্লাহ কসকুনের ছবিটিতে ভোট দেন।