ইরানে পুলিশ স্টেশনে হামলায় নিহত ১৬

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
তেহরান: ইরানে চলমান বিক্ষোভের পঞ্চম দিন সোমবার রাতে কাহেদেরিজান শহরের এক পুলিশ স্টেশনে হামলা চালিয়েছে বিক্ষোভকারীরা। পশ্চিমের শহর কারমানশাহে ট্রাফিক পুলিশ পোস্টে ঘটেছে অগ্নিসংযোগের ঘটনা। এ হামলা নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৬ জনে দাড়িয়েছে

সংবাদ সংস্থা আর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের বিভিন্ন খবর বলছে বিভিন্ন শহরের এই বিক্ষোভ নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে দেশটির আইনশৃঙ্খলাবাহিনী। রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে দশজন নিহত হওয়ার খবর দেওয়ার পর বিভিন্ন আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থা এই সংখ্যা ১৬ বলে জানিয়েছে। নিহতদের মধ্যে এক পুলিশ কর্মকর্তা রয়েছেন বলে জানিয়েছে তুরস্কের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা আনাদোলু।

ইরানে বিক্ষোভে সহিংসতা
সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশিত এক ভিডিওর সূত্রে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলছে, মধ্যাঞ্চলীয় শহর কাহেদেরিজানে বিক্ষোভকারীরা একটি পুলিশ স্টেশনের দখল নেওয়ার চেষ্টা করলে তা প্রতিহত করে নিরাপত্তাবাহিনী। আংশিকভাবে পুড়ে গেছে ওই পুলিশ স্টেশন। ওই ঘটনায় কয়েকজন হতাহত হলেও তার সংখ্যা জানা যায়নি।

পশ্চিমের শহর কারমানশাহে বিক্ষোভকারীরা একটি ট্রাফিক পুলিশ পোস্টে আগুন ধরিয়ে দিলেও তাতে কেউ আহত হয়নি বলে জানিয়েছে মেহর সংবাদ সংস্থা। সরকারি কর্মকর্তাদের বরাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, এই বিক্ষোভে এখন পর্যন্ত শতাধিক বিক্ষোভকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিওতে দেখা গেছে রাজধানী তেহরানে বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে জলকামান ব্যবহার করছে নিরাপত্তা বাহিনী। রবিবার ওই ভিডিওটি তোলা হয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে।

দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার ইরানে শুরু হয়েছে বিক্ষোভ। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আর ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু এই বিক্ষোভে সমর্থন জানিয়েছেন। সরকার সমর্থকদের পাল্টা শোভাযাত্রাও হয়েছে ইরানের রাজপথে। গত রবিবার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে এক ভাষণে দেশটির সর্বোচ্চ নেতা বলেছেন, ইরানিদের সমালোচনা আর বিক্ষোভের অধিকার থাকলেও সহিংসতা সহ্য করা হবে।