তিন দিনের হায়দারাবাদে ইভাঙ্কা ট্রাম্প

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আরটিএনএন
নয়া দিল্লি: ভারতের হায়দরাবাদে পৌঁছেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মেয়ে ও তার উপদেষ্টা ইভাঙ্কা ট্রাম্প। তিন দিনের সফরে মঙ্গলবার তিনি ভারতে পৌঁছান বলে জানা গেছে।

ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রবিশ কুমার বিষয়টি নিশ্চিত করে ভারত ও যুক্তরাষ্ট্রের যৌথ আয়োজনে হায়দরাবাদে মঙ্গলবার থেকে শুরু হতে যাওয়া গ্লোবাল এন্টারপ্রেনারশিপ সামিট (জিইসি)-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখবেন তিনি।

২৮-৩০ নভেম্বর তিন দিনব্যাপী এই সম্মেলন হায়দরাবাদ ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সেন্টার ও হায়দরাবাদ ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড এক্সপোজিশনসে শুরু হয়েছে।

ভারত সফরে আগে টাইমস অব ইন্ডিয়াকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ইভাঙ্কা বলেছেন, বিশ্বের সবচেয়ে বড় গণতান্ত্রিক এই দেশে… আমাদের একসঙ্গে অনেক কিছু করার আছে। নিরাপত্তা সহযোগিতা বৃদ্ধি, সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াই, অর্থনৈতিক অগ্রগতি এগিয়ে নেওয়াসহ উভয়ের স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়ে একযোগে কাজ করতে পারি আমরা।

ইভাঙ্কা ওই বিশেষ সাক্ষাৎকারে টাইমস অব ইন্ডিয়াকে ভারতের সংস্কৃতি, ইতিহাস ও ঐতিহ্যের প্রতি তার একান্ত ভালো লাগার কথা বলেছেন।

জাপানের নারীদের কাছে ইভাঙ্কা রোল মডেল!
মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারণার সময় থেকেই ডোনাল্ড ট্রাম্পের কন্যা রয়েছেন আলোচনায়। ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর ধারণা করা হচ্ছিল ট্রাম্প প্রশাসনে বড় প্রভাব থাকবে ইভাঙ্কার। হয়েছেও তাই।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কন্যা ইভাঙ্কা ট্রাম্প এখন তার পিতার একজন উপদেষ্টার দায়িত্ব পালন করছেন। প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর মিস্টার ট্রাম্প এবারই প্রথম এশিয়া সফর করছেন। খবর বিবিসির।

উত্তর কোরিয়াকে ঘিরে উত্তেজনার মধ্যেই প্রায় এগার দিনের এ সফরে জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়াসহ বেশ কয়েকটি দেশ সফর করছেন তিনি। তার সফরের আগেই টোকিও গিয়েছিলেন ইভাঙ্কা ট্রাম্প। অংশ নিয়েছেন গুরুত্বপূর্ণ কিছু অনুষ্ঠানে কথা বলেছেন ফ্যাশন, নারীর নিরাপত্তাসহ নানা ইস্যুতে।

কিন্তু ইভাঙ্কাকে কেমন দেখেছেন জাপানের নারীরা?
ইভাঙ্কা ট্রাম্প বক্তব্য রাখছিলেন ওয়ার্ল্ড এসেম্বলি ফর উইমেন অনুষ্ঠানে। তিনি মূলত জাপানে গিয়েছিলেন তার পিতা মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জাপান সফরের আগে। অনেকে মনে করেন পিতা প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের একজন উপদেষ্টা হিসেবে সফরের প্রাক প্রস্তুতির বিষয়গুলো দেখভাল করতেই টোকিও গেছেন ইভাঙ্কা ট্রাম্প।

যেখানে একই সাথে আলাদা কিছু কর্মসূচিতেও অংশ নিয়েছেন তিনি। যেখানে জাপানের বিভিন্ন শ্রেণীর নারীরা তাকে দেখার সুযোগ পেয়েছেন কাছ থেকেই,এদেরই একজন পেশায় একটি রেস্টুরেন্টের শেফ ও ম্যানেজার ইয়ুকি চিদুই।

তিনি বলেন ‘ইভাঙ্কা ফ্যাশনের সাথে রাজনীতির একটি ব্যালেন্স করতে পারেন। যদিও আমি সম্পূর্ণ ভিন্ন অবস্থানে, তারপরেও তার জায়গায় আমি নিজেকে দেখতে পাই। যেমন ধরুন এখানে কাজের সময় আমি সাদা অ্যাপ্রোন পরিনা বরং মেক আপ নেই। আমি সবসময় আমার সুশী বারকে ফ্যাশনেবল ও কাজের ক্ষেত্রে আনন্দের রাখতে চাই। এক্ষেত্রে ফ্যাশন ও কাজের মধ্যে সমন্বয়ের ক্ষেত্রে ইভাঙ্কা আমার জন্য রোল মডেল হতে পারে।’

লেখক ও অভিনেত্রী মারি ইয়ামামাতোর কাছে অবশ্য ইভাঙ্কা ট্রাম্প কিছু দ্বিধাগ্রস্ত বৈশিষ্ট্যের। তিনি বলেন ‘আমি তাকে ও তার পিতাকে ভালোভাবেই লক্ষ্য করেছি। একজন নারীকে রাজনীতির গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় বা উঁচু পদে দেখা সবসময়ই চমৎকার। এবং তিনি কিভাবে সেখানে পৌঁছালেন সেটা একেবারেই গৌণ বিষয়। তিনি নির্বাচিত নন, এটাও কোন বিষয় না।’

শিল্পী মিহি ব্যারন আর কিছুদিন পরেই সন্তান জন্ম দেয়ার প্রহর গুনছেন। তাই বলে বন্ধ নেই ছবি আঁকার কাজ। নিজের স্টুডিওতে কাজ করতে করতে বলছিলেন যে ইভাঙ্কা সম্পর্কে আগে তেমন একটা ধারণা তার ছিলনা। তিনি বলেন ‘সত্যি কথা বলতে আমি ইভাঙ্কার সম্পর্কে জেনেছি তার জাপানে আসার খবর শোনার পর। আমি শুনেছি পরিবারের নাম যশ ভালোভাবেই ব্যবহার করছেন তিনি। এরপরেও আমি তাকে শ্রদ্ধা করি কারণ তিনি নিজের একটা ব্রান্ড ভ্যালু তৈরি করেছেন এবং দিন দিন সেটি বাড়ছে।’

জাপানের বিভিন্ন পেশায় থাকা এসব নারীরা মনে করেন সামনের দিন গুলোতে বিশ্ব জুড়ে নতুন প্রজন্ম সবকিছুতেই নিয়ে নতুন নতুন ধারণা। সম্ভবত ইভাঙ্কা ট্রাম্প সে ধারারই প্রতিনিধিত্ব করতে শুরু করেছেন এখনই।

নারীদের যৌন হয়রানি ‘কখনো বরদাস্ত করা হবে না’: ইভাঙ্কা ট্রাম্প
জাপানের রাজধানী টোকিওতে এক অনুষ্ঠানে শুক্রবার ইভাঙ্কা ট্রাম্প বলেছেন, নারীদের ওপর যৌন হয়রানি কোনভাবেই বরদাস্ত করা হবে না। তিনি কর্মক্ষেত্রে নারীদের যথাযথ সম্মান দেয়ার আহবান জানিয়েছেন। খবর এএফপি’র।

বিনোদন জগৎ ও রাজনৈতিক অঙ্গনের অনেক বিশিষ্ট ব্যক্তির বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ নিয়ে বিশ্বব্যাপী খবর প্রকাশিত হওয়ার পর তিনি এমন বক্তব্য দিলেন। টোকিওতে আয়োজিত নারী বিষয়ক বিশ্ব সম্মেলনে বক্তৃতাকালে মার্কিন প্রেসিডেন্টের কন্যা বলেন, ‘প্রায় সর্ব ক্ষেত্রে আমাদের সমাজ নারীদের যথাযথ সম্মান দিতে ব্যর্থ হচ্ছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘কেবলমাত্র যৌন হয়রানি নয়, আরো অনেকভাবেই নারীদের সাথে বৈষম্যমূলক আচরণ করা হচ্ছে। এটা আর কখনো বরদাস্ত করা হবে না।’ উল্লেখ্য, হলিউড প্রযোজক হার্ভে উইনস্টিনের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির বোমা ফাটানোর অভিযোগ ওঠার পর থেকে বিষয়টি গুরুত্বের সাথে সকলের সামনে চলে আসে।

ব্রিটেনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী এক যৌন কেলেংকারির ঘটনায় এ সপ্তাহে পদত্যাগ করেন। এদিকে ট্রাম্পের এক ভিডিও রেকর্ডে দেখা যায়, তিনি অসঙ্গত আচরণ করা নিয়ে গর্ব করছেন। ট্রাম্প বলেন, ‘তারকারা এমনটা করতেই পারে।’

ট্রাম্পের গুরুত্বপূর্ণ এশিয়া সফরের শুরুতে মার্কিন প্রেসিডেন্টের জাপানে পৌঁছানোর মাত্র দু’দিন আগে নারী বিষয়ক ওই অনুষ্ঠানে বক্তব্য দিতে গিয়ে ইভাঙ্কা এসব কথা বলেন।

পরে ইভাঙ্কা ট্রাম্প তার বাবার সফরসূচি নিয়ে জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের সঙ্গে আলোচনা করবেন।

হিলারির পথ ধরেছেন ট্রাম্পকন্যা ইভাঙ্কা!
নিয়মের ব্যত্যয় ঘটিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী থাকাকালে সরকারী কাজে ব্যক্তিগত ইমেইল ব্যবহার করার অভিযোগে ডেমোক্রেটিক প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনকে বারংবার অভিযুক্ত করেছেন ট্রাম্প। এখন সে পথেই হাটছেন ট্রাম্পের মেয়ে ইভাঙ্কা ট্রাম্প।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ঘনিষ্ঠ উপদেষ্টাদের মধ্যে অন্তত ছয়জন হোয়াইট হাউজ বিষয়ক আলাপ আলোচনা চালাতে নিজেদের ব্যক্তিগত ইমেইল অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করেছেন। মার্কিন দৈনিক দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস এই ছয়জনের নাম প্রকাশ করেছে, যার মধ্যে রয়েছেন ট্রাম্পের মেয়ে ইভাঙ্কা ট্রাম্প।

এজন্য তিনি এমনকি কয়েকবারই হিলারি ক্লিনটনকে কারাদণ্ডের মত শাস্তি দেবার দাবি তুলেছিলেন। এদিকে, নিউজউইক ম্যাগাজিন জানিয়েছে, এক ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের কাছে সহযোগিতা চেয়ে ইভাঙ্কা ট্রাম্পের পাঠানো একটি মেইল এবং দুজন ফেডারেল কর্মকর্তাকে সেই মেইলটির পাঠানো কপির বিস্তারিত তাদের হাতে রয়েছে।

এর আগে রবিবার প্রকাশ পায় ইভাঙ্কা ট্রাম্পের স্বামী এবং ডোনাল্ড ট্রাম্পের সিনিয়র উপদেষ্টা জেরার্ড কুশনারের ব্যক্তিগত ইমেইল অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে সরকারি কর্মকাণ্ড পরিচালনার বিষয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে।

ডেমোক্রেট সিনিয়র কংগ্রেসম্যান এলিজাহ কামিংস মি. কুশনারের কাছে চিঠি লিখে অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি যেন তার সব ধরনের ব্যক্তিগত ইমেইল সংরক্ষণ করেন। হোয়াইট হাউজের মুখপাত্র সারাহ স্যান্ডার্স জানিয়েছেন, এসব ইমেইল প্রকাশ করা হবে না।

রবিবার কুশনারের একজন আইনজীবী নিশ্চিত করেন, জানুয়ারি থেকে অগাস্ট পর্যন্ত একশোর মত ইমেইল কুশনার এবং তার স্ত্রী ইভাঙ্কা ট্রাম্পের ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্ট থেকে পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।